দুরুদ-এ-কারবালা

1713

💞দূরুদে কারবালা💞

মহররমের চাঁদ উঠেছে
চেয়ে দেখো মুসলমান (২)
ইমাম হুসাইনের আহবান
ডাকছে শহীদের ময়দান…

চলরে মন যাইরে চল
কারবালার ঐ জমিনে (২)
কাবারই খুন ঝরল যেথায়
হায় রে হায় অকাতরে!!

হক-বাতিলের তফাতটা ভাই
কারবালাতেই জানা যায় (২)
হুসাইন সঙ্গি হবেন যারা
আযাবের ভয় তাদের নাই!!

গভীর রাতে মওলা গেলেন
নানা জানের কবরে (২)
কেঁদে বলেন: তোমার হুসাইন
চলছে শহীদ নগরে….

যে ঘরেতে বাবা জন্মান
সে ঘরও নিরাপদ নয়,(২)
আমর বিল মারুফের কথা
তবু মওলার কন্ঠে রয়…

কালেমারই ঝাণ্ডা হাতে
কোন কাফেলা আসে ঐ (২)
জুলুমাতের আধার চিরে
কোন আলর পথ হাঁসে ঐ!!

সৎ কাজেরই আদেশ করবো
অসৎ পথে চলব না (২)
হুসাইনের এই মূলনীতিটি
জগতবাসী বুঝল না!!

শোকের মাতম উথলে উঠে
আসমান জমিন জুড়িয়া (২)
হুসাইন প্রেমিক মুমিনেরা
জারে জার হয় কাঁদিয়া!!

হাতের কাছে ফোরাত নদী
অথৈ জল তার বয়ে যায় (২)
তৃষ্ণায় কাতর নারি-শিশু
বিন্দু জলও খিমায় নাই!!

তিনদিনেরই তৃষ্ণার্ত সব
কি নিদারুন যন্ত্রনা (২)
পানি পানের করুন আর্জি
ঐ জালিমরা শুনল না!!

দুই পুত্রেরই শাহাদাতে
মুনাজাত দেন মা যয়নাব (২)
কবুল করো এ কুরবানি
হে জগত কুলেরই রব!!

হাসান পুত্র কাশেম দেখ
ঐ কারবালার ময়দানে (২)
হুসাইনি দ্বীন বাঁচাতে হায়
খুনে রঙ্গিন হয়েছে!!

ভাইয়ের লাশটাও খুঁজে পান না
ফাতিমা বিনতে হাসান(২)
অসহায় বোন খুঁজে খুঁজে
আহাজারি করে যান….

আলি আকবর যুদ্ধে গেলেন
বুক ফাটে তাঁর পিপাসায় (২)
বাবার জিহ্বা মুখে নিয়ে
বুকের জ্বালা মিটে যায়!!

ফোরাত তীরে আবুল ফজল
পানি হাতে কেঁদে যায়, (২)
কি করে পান করবো পানি
মওলা এখনও তৃষ্ণায়….

আলামদারের ছিন্ন দেহ
বুকে ধরে মওলা কয়, (২)
সর্বস্ব হারালাম এখন
বেঁচে কি লাভ দুনিয়ায়…

আলি আজগর শহিদ হলেন
কি যাতনা তাঁর গলে (২)
ছটফট করে দুধের শিশু
হায়রে হায় পিতার কোলে!!

সামে গারিবার দূর্দশা
কি করিবো বর্ননা(২)
আতংক আর হতাশাতে
ডুবলো নবির পরিবার….

হাতে পায়ে লোহার বেড়ি
ক্ষত রক্তে ভিজে যায়, (২)
মরূর তপ্ত বালুর পথে
ইমাম সাজ্জাদ হেঁটে যায়…

মা সাকিনার চোখের পানি
কারাগারেও ধরে নাই,(২)
বাবার মাথা কোলে নিয়েই
চিরতরে ঘুমায়ে যায়।

উম্মুল বানিন কেঁদে মরে
মদিনারই দুয়ারে,(২)
নতুন করে জাগলো সবাই
অশ্রুবানের জোয়ারে..

আসগরেরই স্মরন করে
উম্মে রাবাব কেঁদে যায়,(২)
পোড়া দোলনার সামনে বসে
সূর্যেরই তাপ সয়ে যায়….

জয়নুল আবেদিন কারবালাকে
সংগি করেই বেঁচেছেন,
সারা জিবন চোখের জলে
এই শোকে বুক ভাসালেন

ইয়াজিদেরই জুলুমের তরে
হোসাইন ও তার সঙ্গীরা (২)
শহীদ হলেন কারবালাতে,
জেগে উঠেন ভক্তরা ।।

হুসাইন পুত্র যায়নুল শুধু,
কাঁদে একা জারে জার (২)
অসুস্থ ছিলেন কারবালায়,
ইমাম তিনি সাজ্জাদ ।।

কারবালারই পয়গাম তিনি,
প্রচার করলেন নীরবে (২)
নইলে মোদের থাকতে হতো,
শয়তানেরই ফেরেবে ।।

নূরের আলো আবার এলো
সব মুমিনের দিলেতে (২)
ইসলাম আবার জিন্দা হল
কারবালারই শিক্ষাতে ।।

– মোস্তফা কামাল সুমন

Related Post

Leave a comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Translate »