শুক্রবার দিনের বিশেষ আমল

1168

আবারো ঘুরে এলো, আরেকটি শুক্রবার। দয়াল ইমামের আত্মপ্রকাশের পবিত্র দিন।

ইমামের বিরহে ভক্তদের বেদনাসিক্ত মনের কথা ব্যক্ত করার দিন। 

 একদিকে মজলুম ইমাম হুসাইনের করুন শাহাদাতের কষ্টের কথা মনে পড়ে বাঁধ ভাঙ্গা বুকের জ্বালা বেড়ে যায়, অন্যদিকে……
হে ইমাম! তোমার কথা, তোমার সাথে প্রেমময় বাক্যালাপের অভাব আমার অস্তিত্বকে ধুকে ধুকে খায়। কি করে এই বেদনা দূর হবে?!!

হে ইমাম! পর্দার অন্তরালে তোমার অবস্থান ১১৮০ চন্দ্র বর্ষ অতিক্রান্ত হয়েছে…

চাঁদের ন্যায় তোমার পবিত্র মুখটি না দেখেই আরেকটি সপ্তাহ অতিক্রান্ত হলো…
তোমার দিদার ছাড়াই আরো একটি সপ্তাহ পার হয়ে গেলো…

 হে আমার প্রিয় নেতা!…
তোমাকে ছাড়া…
চাঁদের যে আলো নেই…
কবিতার যে ছন্দ নেই…
পথহারা অলিগলির যে নাম নিশানা নেই…

হে আমার প্রিয় নেতা…
হে ঈমানের মূল!
হে মানবতার বসন্তকাল! ফিরে এসো…

তোমাকে ছাড়া…
এই একাকিত্ব ও অসহায়ত্বের জ্বালা যে আর সইতে পারছি না!!!
আমার অবশিষ্ট জীবন আয়ু তোমাকে দিলাম……

••●✦✦●••

🌹হযরত রাসূল (সাঃ)🌹

➡“যে ব্যক্তি শুক্রবার দিনে অথবা শুক্রবারের পূর্ব রাতে দুইশত বার সূরা আল ইখলাস চার রাকাত নামাজের মধ্যে তিলাওয়াত করে অর্থাৎ দুই দুই করে চার রাকাত নামাজের প্রতি রাকাতে সূরা আল ফাতিহার পর পঞ্চাশ বার করে সূরা আল ইখলাস পাঠ করে, তার সকল গুনাহ মাফ করে দেয়া হবে, সেই গুনাহ সমুদ্র সমান হোক না কেন।”

📚মিসবাহুল মুতাহাজ্জিদ, পৃঃ নং ২৬১।

••●✦✨✦✨✦●••

হযরত ইমাম জাফার আস সাদিক্ব আলাইহিস সালাম হতে বর্ণিত-

✍”শুক্রবারের দিন দরুদ ও সালাওয়াত পাঠের চেয়ে উত্তম আমল আর নেই।”

📚 আল খিসাল, পৃঃ নং ৩৯৪।

••●✦✨✦✨✦●••

🔊 শুক্রবারের যিকির🌹(১০০ বার)🌹

『اللَّهُمَّ صَلِّ عَلَی مُحَمَّدٍ وَ آلِ مُحَمَّدٍ』

👇উচ্চারণ👇
➡[আল্লাহুম্মা সাল্লি আ’লা মুহাম্মাদ ওয়া আলে মুহাম্মাদ]

👇অনুবাদ 👇
“হে আল্লাহ্! দরুদ ও সালাওয়াত বর্ষন করো মুহাম্মাদ ও তাঁর (বংশের মনোনীত কিছু ব্যক্তিবর্গ) আলের উপর।”

⇄ এ যিকিরের ফলাফল 👇
➡আল্লাহর অনুগ্রহ ও বরকত লাভ।

••●✦✨✦✨✦●••

❥✦হযরত ইমাম জাফার আস সাদিক্ব(আ:):

“যে ব্যক্তি শুক্রবারের দিন যোহর বা জুম্মা নামাজ বাদ তিন বার (নিচের দরুদটি) পড়বে,

〖 *اَللهمَّ اجْعَلْ صَلَوات وَ صَلَوات مَلائِکَتِکَ وَ رُسُلِکَ عَلی مُحَمَّدٍ وَ آلَ مُحَمَّدٍ*〗

〖আল্ল-হুম্মাজ্আল সালাওয়াতা ওয়া সালাওয়াতা মালাইকাতিকা ওয়া রুসূলিকা আ’লা মুহাম্মাদিউ ওয়া আলে মুহাম্মাদ 〗

সে পরের শুক্রবার পর্যন্ত নিরাপদে থাকবে।”
📚 বিহারুল আনওয়ার, খণ্ড ৯০, পৃঃ নং ৫৬ 

••●✦✨✦✨✦●••

❥✦হযরত ইমাম জাফার আস সাদিক্ব(আ:):

“যে ব্যক্তি শুক্রবারের দিন আসর নামাজ বাদ দশ বার (নিচের দরুদটি) পড়বে,

〖 *اَللهمَّ صَلِّ عَلی مُحَمَّدٍ الْأوْصِیاءِ الْمَرْضییّنَ بِأَفْضَلِ صَلَواتِکَ وَ بارِکْ عَلَیْهِمْ بِأَفْضَلِ بَرَکاتِکَ وَ عَلَیْهِ وَ عَلَیْهِمُ السَّلامُ وَ عَلی اَرْواحِهِمْ وَ أَجْسادِهِمْ وَ رَحْمَهُ الله وَ بَرَکاتُه*ُ〗

〖আল্ল-হুম্মা সাল্লি আ’লা মুহাম্মাদিনিল আওসিয়াইল মারদ্বি-ই-না বিআফদ্বালি সালাওয়াতিকা ওয়া বারিক আলাইহিম। বিআফদ্বালি বারাকাতিকা ওয়া আলাইহি ওয়া আলাইহিমুস্ সালাম। ওয়া আ’লা আরওয়াহ্বিহিম ওয়া আজসাদিহিম ওয়া রাহমাতুল্ল-হি ওয়া বারাকাতুহুহ্〗

ফেরেস্তারা ঐ ব্যক্তির জন্যে এই শুক্রবার থেকে পরের শুক্রবারের এই সময় পর্যন্ত দরুদ পড়তে থাকে।”

📚 জামালুল উসবুহ কিতাব দ্রঃ

••●✦✨✦✨✦●••

🌹হযরত ইমাম আলী ইবনে মুসা আর রিদ্বা আলাইহিস সালাম, বিশ্ব নবী রাহমাতুল্লিল আ’লামিন হযরত মুহাম্মাদ মুস্তাফা সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া আলিহি ওয়া সাল্লাম-এর কাছ থেকে বর্ণনা করেছেন যে, নবীজী বলেছেনঃ

مَنْ صَلَّي عَلَيَّ يَوْمَ اْلْجُمْعَةِ مِاْئَةَ مَرَّةٍ قَضَي اللهُ لَهُ سِتَّيْنَ حَاْجَةً ثَلاَثُوْنَ مِنْهَا لِلْدُّنْيَا وَ ثَلاَثُوْنَ لِلْآخِرَةِ

🔊 “যে ব্যক্তি শুক্রবার দিন আমার উপর একশত বার দরুদ পড়ে আল্লাহ ঐ ব্যক্তির ষাটটি হাজত পূরণ করে দেন, ত্রিশটি এ দুনিয়ার আর ত্রিশটি আখেরাতের।”

📚 সাওয়াবুল আ’মাল ওয়া ইক্বাবুল আ’মাল, লেখকঃ শেইখ সাদুক্ব রহমাতুল্লাহি আলাইহি (জন্ম ৩০৫ হিঃ, মৃত্যু ৩৮১হিঃ), পৃঃ নং ৩৫৬, প্রকাশনাঃ আরমাগানে তুবা, প্রিন্টঃ কোম, ইরান।

••●✦✨✦✨✦●••

দরুদ ও মিলাদ মুহাব্বাতের সাথে পড়ুন…

আল্লাহুম্মা সাল্লি আ’লা সাইয়্যেদিনা মাওলানা মুহাম্মাদ, ওয়া আ’লা আলে সাইয়্যেদিনা মাওলানা মুহাম্মাদ।”

ইয়া নাবী সালামুন আলাইকা,
ইয়া রাসুল সালামুন আলাইকা,
ইয়া হাবীব সালামুন আলাইকা,
সালাওয়া-তুল্লাহি আলাইকা। 

↯↻↯↻↯

Related Post

Leave a comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Translate »