পবিত্র বাইয়াত দিবস- ১৪৪২ হিজরী

1171 0

বিসমিল্লাহির রহমানির রাহিম।
🥀🌹 প্রিয় দ্বীনদার ঈমানদার মুসলমান ভাই ও বোনেরা,
👁‍🗨আস সালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ।
নিশ্চয় আপনারা সকলে অবগত আছেন যে, বাংলাদেশের পঞ্জিকা অনুসারে আগামী মঙ্গলবার ২৭শে অক্টোবর ২০২০ইং হচ্ছে ৯-ই রবিউল আউয়াল। ইমাম মাহদী (আ:)-এর ইমামতের প্রথম দিন। ইমামের হাতে উম্মতের বাইয়াতের দিন।

🌹হিজরী ২৬০ সনের ৮ই রবিউল আওয়াল ইরাকের সামেররা শহরে ইমাম হাসান আসকারী (আ:)-কে শহীদ করা হলে ৯ই রবিউল আওয়াল আমাদের ১২তম ইমাম, ইমাম মাহদী (আ:) ইমামতের পদে অধিষ্ঠিত হন। তখন ইমাম মাহদী (আ:)-এর বয়স ছিল মাত্র ৫ বৎসর। এত অল্প বয়সে ইমামত ও নবুয়্যত লাভের নজির ইতিহাসে এর আগেও স্থাপিত হয়েছে। ইমাম মুহাম্মাদ আত্ তাক্বি (আ:) ৮ বছর বয়সে এবং ইমাম আলী আন নাক্বি (আ:) ৬ বছর বয়সে ইমামতের পদে আসীন হয়েছিলেন। নবীদের মধ্যে হযরত ইয়াহিয়া (আ:) ৯ বছর বয়সে এবং হযরত ঈসা (আ:) দোলনাতেই নবুয়্যত লাভ করেন।

🌷এ পবিত্র ও শুভ বাইয়াত দিবস উপলক্ষে ইমামিয়া তরিকার সকল অনুসারী এবং নবীজীর পবিত্র আহলে বাইতের সকল আশেককে জানাই আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা, ঈদ মুবারক।

🌺এ পবিত্র দিনটিকে স্মরণ করে আগামী সোমবার ৮ই রবিউল আউয়াল, ২৬শে অক্টোবর ২০২০ইং দিবাগত রাতে ইমামিয়া পাক দরবার শরীফ, ঢাকা, বছিলাতে উদযাপিত হচ্ছে বাইয়াতের এক ভাবগম্ভির আনন্দানুষ্ঠান। (বাইয়াতের অনুষ্ঠানটি শুরু হবে রাত সাত ঘটিকায়)।

🌺এই বাইয়াত দিবসের অনুষ্ঠানে আমরা ইমামের হাতে পুনরায় আমাদের বাইয়াত নবায়ন করবো এবং নতুনরা প্রথম বারের মত ইমামের সাথে বাইয়াত হবেন।

🦋 প্রথমে দরুদ পাঠের পর সিগ্বাতুত তাওবা পাঠ করা হবে। অতঃপর নিচের বিষয়গুলোর উপর বাইয়াত হবেঃ
১. সকল ফরজ কাজ যথাযথভাবে আমল করবো।
২. সকল হারাম কাজ পরিত্যাগ করে চলবো।
৩. সকল প্রকার নেশা থেকে নিজেকে এবং নিজ পরিবারকে মুক্ত রাখবো।
৪. লেন-দেন, সম্ভ্রম ও নৈতিকতার বিষয়ে পরিপূর্ণ আমানতদারীতা ও স্বচ্ছতাসহ জীবন যাপন করবো।
৫. নিজের ও তরিকার অপর ভাই-বোনদের বেকারত্ব মোচনে হালাল উপার্জনের পথ অবলম্বন ও ব্যবস্থা করবো।
৬. যামানার ইমামের প্রতি পূর্ণ আনুগত্য বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ইমামিয়া পাক দরবার শরীফের সকল বিধি-নিষেধ মেনে চলবো।

*সর্বশেষে দরুদ ও তাবাররুক পরিবেশনের মাধ্যমে বাইয়াত মাহফিল সমাপ্ত হবে ইনশাআল্লাহ।*

🤝উক্ত মাহফিলে আপনারা দলে দলে যোগদান করুন। আশা করি আপনাদের স্বপরিবার ও স্ববান্ধব উপস্থিতি এবং বাইয়াত গ্রহণ ও নবায়ন, ইমামের আত্মপ্রকাশকে বেগবান ও তরান্বিত করবে। আর এর মাধ্যমে কবর ও হাশরের মাঠে হিসাব নিকাশের সময় ইমামের সুপারিশের কারণে আমাদের নাজাতের বিষয়টিও নিশ্চিত হবে ইনশাআল্লাহ।

🌐ইমামিয়া পাক দরবার শরীফ
✔️ নূরে আলম মুহাম্মাদী

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »