ইমাম মাহদী (আঃ) হতে বর্ণিত হাদিস সমুহ

1884 0

১। ইমাম মাহদী আলাইহিস সালামঃ

لأَندُبَنَّكَ صَباحا و مَساءً و لأَبكِيَنَّ عَلَيكَ بَدَلَ الدُّمُوعِ دَما

(بحار الأنوار ، ج 101 ، ص 238 ).

প্রতি সকাল রাত্রিতে আমি তোমাদের জন্যে এমনভাবে কাঁদি যে, চোখ দিয়ে পানির স্থলে রক্ত ঝড়ে

বিহারুল আনওয়ার, খণ্ড ১০১, পৃঃ নং ২৩৮

২। ইমাম মাহদী আলাইহিস সালামঃ

امام مهدى عليه السلام : كان [الإمامُ العَسكَري عليه السلام] نُورا ساطِعا و قَمَرا زاهِرا اختارَ اللّه ُ لَهُ ما عِندَهُ فَمَضى عَلى مِنهاجِ آبائِهِ حَذوَ النَّعلِ بِالنَّعلِ ؛

( بحار الأنوار ، ج 53 ، ص 191 ).

তিনি (ইমাম হাসান আসকারী আলাইহিস সালাম) ছিলেন প্রোজ্জ্বল আলোকবর্তিকা উজ্জ্বল চন্দ্র  আল্লাহ তাঁর নিজের কাছে যা ছিল তা দিয়ে তাঁকে মনোনীত করেছেন তিনি প্রতিটি কদমে কদমে হুবহু তাঁর পিতা পিতামহদের পথে চলেছেন  অবশেষে তিনি ইন্তেকাল করেন

বিহারুল আনওয়ার, খণ্ড ৫৩, পৃঃ নং ১৯১

৩। ইমাম মাহদী আলাইহিস সালামঃ

امام مهدى عليه السلام : إنَّ لِي في إبنَةِ رَسولِ اللّه ِ اُسوَةٌ حَسَنةٌ ؛

( الغيبه ، طوسى ، ص 286 ).

আল্লাহর রাসূলের কণ্যা (ফাতিমা) আমার জন্যে উত্তম আদর্শ

আল গ্বাইবাহ, শেইখ তুসী, পৃঃ নং ২৮৬

৪।  ইমাম মাহদী আলাইহিস সালামঃ

امام مهدى عليه السلام : إنَّ اللّه َ بَعَثَ مُحَمَّدا رَحمَةً لِلعالَمينَ و تَمَّمَ بِهِ نِعمَتَهُ؛

(بحار الأنوار ، ج 53 ، ص 194 ).

নিশ্চয় আল্লাহ (হযরত) মুহাম্মাদ (সা.)-কে বিশ্ববাসীর জন্যে রহমত স্বরূপ এবং তাঁর নেয়ামত পরিপূর্ণ করার নিমিত্তে প্রেরণ করেছেন

বিহারুল আনওয়ার, খণ্ড ৫৩, পৃঃ নং ১৯৪

৫।  ইমাম মাহদী আলাইহিস সালামঃ

امام مهدى عليه السلام : إنّي أمانٌ لأِهلِ الأرضِ كَما أنَّ النُّجُومَ أمانٌ لأِهلِ السَّماءِ؛

(بحار الأنوار ، ج 78 ، ص 380).

নিশ্চয় আমি ভুমণ্ডলের অধিবাসীদের জন্যে নিরাপত্তাস্বরূপ, যেমনি করে তারকাসমূহ আসমানের অধিবাসীদের জন্যে নিরাপত্তা বিধান করে

বিহারুল আনওয়ার, খণ্ড ৭৮, পৃঃ নং ৩৮০।

৬। ইমাম মাহদী আলাইহিস সালামঃ

امام مهدى عليه السلام : أنَا بَقِيَّةُ اللّه ِ في أرضِهِ و خَليفَتُهُ و حُجَّتُهُ عَلَيكُم ؛

(كمال الدّين ، ص 331 ).

আমি যমিনের বুকে আল্লাহর স্মৃতি এবং তোমাদের জন্যে তাঁর প্রতিনিধি অকাট্য দলীল

কামালুদ্দীন, পৃঃ নং ৩৩১

৭।  ইমাম মাহদী আলাইহিস সালামঃ

امام مهدى عليه السلام : أمّا وَجهُ الاِنتفاعِ بِي في غَيبَتي فَكَالاِنتِفاعِ بِالشَّمسِ إذا غَيَّبَها عَنِ الأبصارِ السَّحابُ ؛

(بحار الأنوار ، ج 52 ، ص 92 ).

আমার অদৃশ্যকালে আমার মাধ্যমে উপকৃত হওয়ার দৃষ্টান্ত হচ্ছে মেঘাচ্ছন্ন অবস্থায় সূর্যের কাছ থেকে উপকৃত হওয়ার ন্যায়

বিহারুল আনওয়ার, খণ্ড ৫২, পৃঃ নং ৯২।

৮।  ইমাম মাহদী আলাইহিস সালামঃ

امام مهدى عليه السلام : أنَا الَّذي أملأَُها عَدلاً كَما مُلِئَت جَورا ؛

(بحار الأنوار ، ج 52 ، ص 2 ).

আমি ভুপৃষ্ঠকে (জুলুমের নিপাত ঘটিয়ে) ন্যায়বিচারে পরিপূর্ণ করে দিবো যেমনি করে তখন পৃথিবী জুলুম অত্যাচারে ভরপুর থাকবে

বিহারুল আনওয়ার, খণ্ড ৫২, পৃঃ নং ০২।

৯। ইমাম মাহদী আলাইহিস সালামঃ

امام مهدى عليه السلام : إنَّ الأرضَ لا تَخلُو مِن حُجَّةٍ إمّا ظاهِرا و إمّا مَغمُورا ؛

(كمال الدّين ، ج 2 ، ص 511 ).

পৃথিবী হুজ্জাত থেকে শুন্য থাকবে না তা দৃশ্যমান হোক অথবা অদৃশ্যমান

 কামালুদ্দীন, খণ্ড , পৃঃ নং ৫১১

১০। ইমাম মাহদী আলাইহিস সালামঃ

امام مهدى عليه السلام : لِيَعمَل كُلُّ امْرِءٍ علَى ما يُقَرَّبُ مِن مَحَبَّتِنا ؛

(بحار الأنوار ، ج 53 ، ص 176 ).

তোমাদের প্রত্যেক ব্যক্তিকে অবশ্যই এমন সব কাজ করতে হবে যার মাধ্যমে সে আমাদের মহব্বতের কাছাকাছি হবে

বিহারুল আনওয়ার, খণ্ড ৫৩, পৃঃ নং ১৭৬।

১১। ইমাম মাহদী আলাইহিস সালামঃ

❥◆ইমাম হুসাইনের তুরবাত বা শাহাদাতের স্থানের মাটি দিয়ে বানানো তসবিহ-র ফজিলতঃ
সাইয়েদুশ শুহাদা ইমাম হুসাইনের তুরবাতের অন্যতম ফজিলত হচ্ছে যে, এই তুরবাত দিয়ে তৈরী তসবিহ হাতে রাখলেই হলো, তাসবিহ (আল্লাহর মহিমা বর্ণনা) ও যিকিরের সাওয়াব পাওয়া যায়, যদিও কোন কিছু পড়া না হয়।
📚
বিহারুল আনওয়ার, খণ্ড ৫৩, পৃঃ নং ১৬৫।

Related Post

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »